1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৪:৪০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নড়াইলে কোরবানির জন্য প্রস্তুত ৬৪ হাজার ৭৪৮টি পশু নড়াইলে অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে জুতার মালা পরানোর ঘটনার প্রতিবাদে বিশাল মানববন্ধন থানায় অভিযোগ দায়ের- নড়াগাতীতে কিশোরকে মারপিটের অভিযোগে মানববন্ধন! ঈদ উপলক্ষে আলাউদ্দিন আহমেদ শিক্ষাপল্লী পার্কে সংযোজন হতে যাচ্ছে দুটি রাইডার নতুন এমপিও তালিকা ২০২২ ফাইতং উচ্চ বিদ্যালয় নাম প্রকাশিত নড়াইলে দলিল লেখক খোকন চন্দ্র রায়কে ছুুরিকাঘাত কুমিল্লায় আনসার ভিডিপি কার্যালয়ের বৃক্ষরোপণ অভিযান অনুষ্ঠিত হয়েছে নড়াইলের কালিয়ার কয়েকটি বাজারে সরকারি জমিতে গড়ে ওঠেছে অসংখ্য অবৈধ স্থাপনা। কুষ্টিয়া হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ ইদ্রিসের চাঁদাবাজির দৌরাত্ত্বে পরিবহন সেক্টর অসহায় র‍্যাবের অভিযানে সন্ত্রাসী সম্রাট ও মাদক ও অস্ত্রসহ গ্রেফতার

পুলিশকে জনগণের ভরসাস্থল হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০২২
  • ১৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক,সময়ের পথঃবিপদে পড়া মানুষের ভরসাস্থল হয়ে ওঠার জন্য পুলিশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার পদ্মা সেতুর দুই পাড়ে দুটি থানাসহ পুলিশের পাঁচটি উন্নয়ন ও বিশেষ কাজ উদ্বোধনের সময় এই আহ্বান জানান তিনি। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি তিনি এই কার্যক্রমগুলো উদ্বোধন করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ৮ মে সারদা পুলিশ একাডেমিতে যে ভাষণ দিয়েছিলেন, সেখানে তিনি বলেছিলেন, ‘আপনারা জনগণের সাহায্য-সহযোগিতায় এদেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা করবেন। আমি দুনিয়ার অনেক জায়গায় গিয়েছি। গ্রেট ব্রিটেনে দেখেছি একজন সিপাহীকেও জনসাধারণ শ্রদ্ধা করে। কোনো পুলিশ কর্মচারীকে দেখলে তারা আশ্রয় নেওয়ার জন্য তার কাছে দৌড়ে যায়। তারা মনে করে পুলিশ তাদের সহায়’।

“জাতির পিতার এই নির্দেশ আপনারা মেনে চলবেন, সেটাই আমি চাই। আমাদের দেশেও পুলিশ বাহিনী সেভাবেই জনগণের আস্থা অর্জন করবে, যেন জনগণ মনে করে যে তার জীবন রক্ষায়, মান রক্ষায় পুলিশই হচ্ছে শেষ ভরসা। কাজেই সেই ভরসার স্থান হিসেবে পুলিশকে জনগণের সামনে নিজেকে তুলে ধরতে হবে।”

করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলায় পুলিশের দায়িত্বশীল ভূমিকার কথা স্মরণ করে এই বাহিনীর প্রশংসাও করেন সরকার প্রধান।

“করোনাভাইরাস মোকাবেলায় পুলিশের যে নজিরবিহীন ভূমিকা, সেজন্য সত্যিকার জনবান্ধব পুলিশ হিসেবে জনগণের কাছে একটা মর্যাদা পাচ্ছে বলে আমি মনে করি।”

বাংলাদেশ পুলিশের উন্নয়ন ও আধুনিকায়নে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও আওয়ামী লীগ সরকারের নেওয়া নানা উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর দুই পাড়ে ‘পদ্মা সেতু (উত্তর) থানা’ ও ‘পদ্মা সেতু (দক্ষিণ) থানা’ উদ্বোধনের পাশাপাশি গৃহহীন, ভূমিহীন অসহায় মানুষের জন্য বাংলাদেশ পুলিশ কর্তৃক নির্মিত ১২০টি গৃহ হস্তান্তর, নবনির্মিত ১২টি পুলিশ হাসপাতাল, বাংলাদেশ পুলিশের জন্য ছয়টি নারী ব্যারাক এবং অনলাইন জিডি কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আখতার হোসেন, বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি বক্তব্য রাখেন।

উদ্বোধন হতে যাওয়া পদ্মা সেতুকে বাংলাদেশের ‘মানুষের সক্ষমতা ও মর্যাদার প্রতীক’ অভিহিত করে শেখ হাসিনা এই সেতু নির্মাণ করতে গিয়ে নানা ষড়যন্ত্রের মুখোমুখি হওয়ার কথা বলেন।

তিনি বলেন, “আমরা চাই, আমাদের দেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ থাকবে। জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অভিযান সফল হয়েছে। সেই অভিযান অব্যাহত থাকবে। এই ধরনের কোনো ঘটনা যেন না ঘটে।”

সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি রক্ষায় পুলিশের দক্ষতার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, “যারা এই ধরনের ক্রাইম করেছে, তাদের সাথে সাথে ধরা হয়েছে। সেইসব জায়গার হয়ত ভিডিও ছিল না, অন্য জায়গার বা তার আশেপাশের ভিডিও থেকে তথ্য সংগ্রহ করে সেই ক্রিমিনালগুলোকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।”

মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে পুলিশকে বিশেষ নজর রাখতে বলেন তিনি।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট