1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০২:৪৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
লামায় ভূমি সেবা পালিত “ভূমি সেবা ডিজিটাল বদলে যাচ্ছে দিনকাল নরসিংদীতে বেলাবতে বসতঘর থেকে স্ত্রী ও দুই সন্তানের মরদেহ উদ্ধার, পিতা আটক ছাত্রী যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ষড়যন্ত্রমূলক ‘ সংবাদ সম্মেলনে দাবি শিক্ষক বেলায়েতের পরিবারের কুড়িগ্রামে আছিয়ার জীবনযাপন গোয়াল ঘরে আসক ফাউন্ডেশন বাস্তুহারা ছিন্নমূল বস্তিবাসীদের স্থায়ী আবাসনের জন্য কাজ করবে একুশে গানের রচয়িতা,কিংবদন্তী সাংবাদিক, আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরীর মৃত্যতে ইউকে বিডি টিভির শোক প্রকাশ, সাংবা‌দিক ইমরা‌নের বাবার মৃত‌্যু‌তে ফেনী বিএমএসএফ’র শোক কুষ্টিয়া ঝাউদিয়ায় আবারও একজন খুন ১৫ মিনিটের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড কুষ্টিয়া, দ্রুত অপসারণে মাঠে উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা ঝড়ে রেললাইনের উপর গাছ উবড়ে পরায় ৪ ঘন্টা বিলম্বে কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস

সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে বিবাহিতদের স্হান রয়েছে বলে অভিযোগ

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২২
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে বিবাহিতদের স্হান রয়েছে বলে অভিযোগ

সিলেট প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে বিবাহিতরা স্থান পেয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তাঁদের সংগঠন থেকে বহিষ্কারের দাবি করেছেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত কর্মীরা।

তাঁরা জানান, ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রের ৫-এর গ ধারা অনুযায়ী বিবাহিত ব্যক্তি ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাবেন না। গত মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেয় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদ। ২৯৪ সদস্যবিশিষ্ট কমিটির সভাপতি করা হয় দীপংকর কান্তি দে এবং সাধারণ সম্পাদক করা হয় আশিকুর রহমান রিপনকে।

কমিটি গঠনের পর থেকে পদবঞ্চিত ছাত্রলীগ কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীরা অভিযোগ করেন, নবগঠিত কমিটির উপ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মির্জা ইসলাম মান্না ও সহ সম্পাদক রায়হান হোসেন দুজনে বিবাহিত। গঠনতন্ত্র না মেনে তাদের কমিটিতে রাখা হয়েছে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দিরাই পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের নতুন বাগবাড়ী গ্রামের মির্জা ইসলাম মান্না ও রায়হান হোসেন সম্পর্কে চাচাতো ভাই। ওই ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সবুজ মিয়ার মেয়েকে প্রায় চার বছর আগে বিয়ে করেন মির্জা ইসলাম। তিনি এক ছেলে সন্তানের জনক।

পদবঞ্চিত নেতারা জানান, মির্জা ইসলাম মান্না একজন অছাত্র। তিনি স্কুল কিংবা মাদ্রাসায় কখনো শিক্ষাগ্রহণ করেননি। এছাড়া রায়হান হোসেন প্রায় বছরখানেক পূর্বে পৌর সদরের হারানপুর গ্রামের সনাতন ধর্মাবলম্বী এক মেয়েকে প্রেম করে পালিয়ে বিয়ে করেন। মেয়ের পরিবার মামলা দায়ের করলে রায়হান বেশ কিছুদিন হাজতবাস করে জামিনে মুক্ত হন। বর্তমানে রায়হান হোসেন সস্ত্রীক নিজ বাড়িতেই বসবাস করছেন।

সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান রিপন বলেন, অনেকেই হয়তো তথ্য গোপন করে জীবনবৃত্তান্ত জমা দিয়েছে। আমরা ঈদুল ফিতরের পর বসবো। যাচাইবাছাই করে এ রকম পাওয়া গেলে তাদের অব্যাহতি দেয়া হবে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দীপংকর কান্তি দে বলেন, উপযুক্ত প্রমাণ পাওয়া গেলে বিবাহিতদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট