1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
লামায় ভূমি সেবা পালিত “ভূমি সেবা ডিজিটাল বদলে যাচ্ছে দিনকাল নরসিংদীতে বেলাবতে বসতঘর থেকে স্ত্রী ও দুই সন্তানের মরদেহ উদ্ধার, পিতা আটক ছাত্রী যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ষড়যন্ত্রমূলক ‘ সংবাদ সম্মেলনে দাবি শিক্ষক বেলায়েতের পরিবারের কুড়িগ্রামে আছিয়ার জীবনযাপন গোয়াল ঘরে আসক ফাউন্ডেশন বাস্তুহারা ছিন্নমূল বস্তিবাসীদের স্থায়ী আবাসনের জন্য কাজ করবে একুশে গানের রচয়িতা,কিংবদন্তী সাংবাদিক, আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরীর মৃত্যতে ইউকে বিডি টিভির শোক প্রকাশ, সাংবা‌দিক ইমরা‌নের বাবার মৃত‌্যু‌তে ফেনী বিএমএসএফ’র শোক কুষ্টিয়া ঝাউদিয়ায় আবারও একজন খুন ১৫ মিনিটের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড কুষ্টিয়া, দ্রুত অপসারণে মাঠে উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা ঝড়ে রেললাইনের উপর গাছ উবড়ে পরায় ৪ ঘন্টা বিলম্বে কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস

মানবপাচার মূলহোতাসহ বিপুল ভুয়া নথিপত্রসহ ৫জন আটক

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৯ বার পড়া হয়েছে

মানবপাচার মূলহোতাসহ বিপুল ভুয়া নথিপত্রসহ ৫জন আটক
মোহাম্মদ মাসুদ চট্টগ্রাম।

মানবপাচার সিন্ডিকেটের মূলহোতাসহ ৫ জন সক্রিয় সদস্যকে চট্টগ্রাাম ও কক্সবাজার থেকে গ্রেফতার এবং বিপুল পরিমাণ পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয়পত্রসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক ভুয়া নথিপত্র জব্দ করেছে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম।

গত ১০ এপ্রিল বিকাল ০৩ঃ০০ ঘটিকায় র‌্যাব-৭, একটি চৌকষ আভিযানিক দল চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলার বাঁশখালী এবং পেকুয়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আসামীদের আটক করতে সক্ষম হয়।

মানব পাচার চক্রের মূলহোতা ধৃত ১ ও ২নং আসামী ইসমাইল হোসেন ও শফিউল আলম। এরা পরষ্পর সহোদর ভাই। তাদের উভয়ের নামে বিভিন্ন থানায় ০৭টি করে মানব পাচার আইনে মামলা আছে। তারা কক্সবাজার জেলার পেকুয়া ও চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী থানা এলাকার নিরীহ মানুষের দারিদ্রতার সুযোগে স্বল্প খরচে বিদেশ পাঠানোর জন্য কন্ট্রাক করে তাদের নিকট থেকে খালি স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর রেখে কিছু টাকার বিনিময়ে মালয়েশিয়া যেতে আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট বানানোর জন্য তাদের অন্যতম সহযোগী আসামী রিয়াজ খাঁন রাজুকে দেয়। আসামী রিয়াজ খাঁন রাজু মালোশিয়া যেতে আগ্রহী প্রার্থীদের পাসপোর্ট তৈরীর কাজ সম্পন্ন করে স্ব-স্ব ব্যক্তিদের নামে প্রস্তুতকৃত পাসপোর্ট প্রদান করে তাদের মনে বিশ্বাস স্থাপন করে এবং বলে তাদের মাধ্যমে স্বল্প খরচে মালয়েশিয়া যাওয়া সম্ভব। নিরীহ লোকজন এই চক্রকে বিশ্বাস করে রাজুর নিকট মোট খরচের অর্ধেক টাকা জমা করতো। অতঃপর রাজুর সহযোগী উল্লেখিত অন্যান্য সদস্যদের সহায়তায় মালয়েশিয়া গমনে ইচ্ছুক লোকদের গভীর রাতে ট্রলারে তুলে দিতো। ট্রলারে তুলে দেওয়ার পূর্বে তাদের সকলের পাসপোর্ট এর কপি রাজুর নিকট রেখে দিতো। সে লোকজনদের বলতো বিদেশ পৌছানোর পর বাকি টাকা পরিশোধ করলে তাদের নিকট পাসপোর্ট পাঠিয়ে দিবে। ধৃত ৫নং আসামী ইউনুছ নিবিড়ভাবে আসামী ইসমাইল ও শফিউল আলমদের মানব পাচারে লোক সংগ্রহের কাজে সহায়তা করতো।

ভুক্তভোগী ভিকটিম জয়নাল আবেদীন ধৃত ৩নং আসামী রিয়াজ খান রাজুকে বিশ্বাস করে তার নিকট একটি পাসপোর্ট তৈরী করার জন্য যায়। রাজু তাকে পাসপোর্ট বানানোর কারণ জিজ্ঞাসা করলে ভিকটিম বলে সুযোগ হলে কখনো বিদেশ যাবো। তখন রাজু ভিকটিমকে বলে, তাকে কম টাকার মধ্যে মালয়েশিয়া পাঠাতে পারবে। তার মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশে লোক আছে। এই কথার প্রেক্ষিতে ভিকটিম রাজুকে পাসপোর্ট তৈরী করার জন্য প্রাথমিকভাবে ১৫,০০০/- টাকা দেয়। কিছু দিনের মধ্যে রাজু ভিকটিমকে পাসপোর্ট তৈরী করে দেয়। তখন ভিকটিম রাজুকে বিশ্বাস করে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য পুনরায় ১,০০,০০০/- টাকা দেয় এবং বাকি টাকা মালয়েশিয়া যাওয়ার পর পরিশোধ করলে হবে মর্মে রাজু জানায়। টাকা দেওয়ার ১৫ দিন পর রাজু ভিকটিমকে গভীর রাতে পেকুয়া থানাধীন একটি ঘাট হতে ট্রলারে উঠিয়ে দেয়। ঐ ট্রলারে রাজুর মানব পাচার চক্রের কয়েকজন সদস্যসহ আরো ১৫/২০ জন ভুক্তভোগী ছিলো। পরবর্তীতে তাদেরকে নিয়ে ২/৩দিন গভীর সাগরে ঘুরাফেরা করে হঠাৎ গভীর রাতে সেন্টমার্টিন দ্বীপে নামিয়ে দিয়ে মালয়েশিয়া চলে এসেছে বলে ট্রলার থেকে সবাইকে নামিয়ে দেয়। সকাল হলে ভুক্তভোগীরা সবাই বুঝতে পারে যে, রাজুর প্রতারণা করে তাদেরকে সেন্টমার্টিন দ্বীপে নামিয়ে দিয়েছে। অতঃপর তারা কয়েকদিন সেন্টমার্টিন দ্বীপে মানবেতার জীবন যাপন করে যে যার মতো করে বাড়ি ফিরে আসে। বাড়ি এসে রাজুর কাছ থেকে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য দেওয়া টাকা ফেরত চাইলে তাদের’কে মারধর করে এবং অপহরণ পূর্বক মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করে। রাজু স্থানীয়ভাবে পেকুয়া উপজেলা এলাকায় একজন রাজনৈতিক প্রভাবশালী ব্যক্তি। তার ভয়ে এলাকার কোন লোক কথা বলার সাহস পায় না। তার সাথে লাগতে গেলে বাড়িঘর দখল করে বাড়ি ছাড়া করে দেয় এবং তার ভয়ে কেউ থানায় অভিযোগ পর্যন্ত করার সাহস পায় না। উল্লেখ্য যে, আসামী রিয়াজ খান রাজু উল্লেখিত ব্যক্তি সাথেই এরকম প্রতারণা করেনি। সে তার আশ পাশের এলাকার আরও অনেক নিরীহ সাধারন মানুষদের সাথে একই পন্থায় একইভাবে প্রতারনা করে আসছে।
অন্যদিকে ভুক্তভোগী মোক্তার আলী ধৃত ৪নং আসামী হোসেন এর ছেলে এমরান এর মাধ্যমে মোজাম্বিক যায়। মোক্তার আলী সেখানে গিয়ে এই চক্রের মাধ্যমেই অপহৃত হয়। পরবর্তীতে আসামী হোসেন এর ছেলে এমরান অপহৃত মোক্তারের ভাই জয়নালকে জানায় যে, তার বাবা হোসেন আলীকে নগদ ৭,৮০,০০০/- টাকা দিলে মোক্তার হোসেনকে ছেড়ে দিবে। তখন জয়নাল আবেদীন তার ভাইকে ফিরে পাওয়ার উদ্দেশ্যে হেসেনের বাড়ীতে গিয়ে উল্লেখিত টাকা গুলো দিয়ে আসে। তারপরও মোক্তার আলীর কোন খোঁজ না মিলায় জয়নাল আবেদীন বাদী হয়ে হোসেন সহ তার দুই ছেলে ও আরো ৪ জন সহযোগীর বিরুদ্ধে কক্সবাজার জেলার বাঁশখালী থানার একটি মামলা দায়ে করে, যার নং-২৭, তাং-১৯/০৪/১৭, ধারা-৩৮৬/৩৪ পেনাল কোড। মূলত ধৃত আসামী মোঃ হোসেন মানব পাচার চক্রের অন্যতম সদস্য তার ছেলের মাধ্যমে সে নিরীহ লোকজনদের মোজাম্বিক পাঠিয়ে তাদের এই চক্রের সদস্যের দ্বারা বিভিন্নভাবে অপহরণ করে অপহৃত ব্যক্তিদের বাংলাদেশে থাকা আত্মীয়-স্বজনদের নিকট হতে মোঃ হোসেন মোটা অংকের টাকা আদায় করতো।

উপরে উল্লেখিত ধৃত আসামীদের এরুপ অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ কোন অভিযোগ করার সাহস পায় না। তারা মালয়েশিয়া লোক পাঠানোর কথা বলে নিরীহ লোকজন টাকা দিতে না পারলে তাদের নিকট হতে খালি স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর রেখে তাদেরকে অবৈধভাবে সাগর পথে ট্রলার যোগে মালয়েশিয়া কোন এক অজ্ঞাত দ্বীপে নামিয়ে দিয়ে আসে। এরপর তার পরিবারের নিকট থেকে মালয়েশিয়া যাওয়ার খরচ চায়। দিতে না পারলে স্বাক্ষরযুক্ত স্ট্যাম্পের মাধ্যমে তাদের আবাদি জমি জমা বাড়ি-ঘর দখল করে নেয়। ঐদিকে মালয়েশিয়া গামী লোক গুলো কোন এক দ্বীপে খাওয়ার অভাবে কেউ কেউ মারাও যায়। আবার কেউ সাগরে ট্রলার ডুবেও মারা যায়।
বর্ণিত আসামীদের এহেন অপকর্ম দীর্ঘদিন যাবত কোন লোক অভিযোগ করার সাহস পায় না। একপর্যায়ে বাধ্য হয়ে প্রত্যক্ষভাবে ০৫ জন ভুক্তভোগী ব্যক্তি আসামীদের এরুপ কার্যের বিরুদ্ধে অধিনায়ক র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করে। বিষয়টি অত্যন্ত হৃদয় বিদারক ও অমানবিক হওয়ায় র‌্যাব-৭ চট্টগ্রাম গুরুত্বের সহিত আমলে নিয়ে উল্লেখিত মানব পাচার চক্রের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট