1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১২:২৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
ভুমিহীন উচ্ছেদে সময় বাড়ানোসহ পুর্নবাসনে মানববন্ধন। হরিনাকুণ্ডুতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক্টর খাদে, চাপা পড়ে চালক নিহত হজে যাওয়ার ব্যয় জনপ্রতি আরও বাড়ল ৫৯ হাজার টাকা: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী উলিপুরে ব্রহ্মপুত্র নদীর ভাঙন ভয়াবহ রূপ কাঁদছে নদীর পাড়ের মানুষ কুমিল্লা জেলায় আদর্শ সদর উপজেলা আনসার ভিডিপি ২০২২ সমাবেশ অনুষ্ঠিত। টেক্সাসে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বন্দুকবাজের গুলি, ১৯ শিশুসহ নিহত ২১।  কালিয়ায় অজ্ঞাত যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। দামুড়হুদায় ইয়াবাসহ আটক হাবিবকে জাতীয় সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম থেকে বহিস্কার। হরিণাকুণ্ডুতে জঙ্গিবাদ,মাদক ও বাল্যবিবাহ নিরোধে ক্যাম্পেইন করলেন হরিনাকুণ্ডু থানার ওসি নওগাঁয় সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার শাকিলা এর বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ

চাকুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বরাদ্দের টাকার হিসাব চাওয়ায় সহকারি শিক্ষককে হুমকি

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৫ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৭ বার পড়া হয়েছে

চাকুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়
বরাদ্দের টাকার হিসাব চাওয়ায় সহকারি শিক্ষককে হুমকি

দামুড়হুদা প্রতিনিধি :
চাকুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আরিফা আক্তার যোগদান করার পর থেকেই তার বিরুদ্ধে অনিয়মের নানা অভিযোগ রয়েছে। তাকে ইতোপূর্বে বিভিন্ন কারনে চারবার শোকজ করেছে উপজেলা শিক্ষা অফিস। তবে অজানা কারনে আরিফা আক্তারকে অন্যত্র বদলী বা বিভাগীয় শাস্তি হয়নি তার।
সম্প্রতি চাকুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক রবিউল আউয়াল প্রধান শিক্ষক আরিফা আক্তারের বিরুদ্ধে উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।
এব্যাপারে সহকারি শিক্ষক রবিউল আউয়াল বলেন, গত ১৫ মার্চ আনুমানিক বেলা ১১টার দিকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আরিফা আক্তার এর সাথে বিদ্যালয়ের বিভিন্ন কাজের জন্য বরাদ্দের টাকা বিষয়ে কথা বলার সময় তিনি আমাকে হুমকি এবং অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করেন। বিশেষ করে উপবৃত্তির হিসাবের কথা বলতে গেলে উনি আমাকে বলে যারা ফকিরের বাচ্চা এবং যারা প্রকৃত ফকির তারা হিসাব চাইতে আসে।
তিনি আরো জানান, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তার নিজের ইচ্ছামত বিদ্যালয় পরিচালনা করেন। বিভিন্ন বরাদ্দের টাকা কাজ নিজেই করেন তিনি। হিসাবের কোন বিল-ভাউচার স্কুলের বিল রেজিস্টার সহ যাবতীয় রেজিস্টার স্কুলে রাখেন না।
উদ্ধৃত টাকা প্রতিদিন ৩০ টাকা হারে মোবাইল খরচ দেখানো হয়। যেটা আমাদের প্রাপ্য আছে কি না জানতে গেলে হেড ম্যাডাম আমাকে পাগল, ফকির, ,এই স্কুলে কি ভাবে চাকুরি করো আমি দেখছি বলে হুমকি দেয়।
তিনি আরো বলেন, এ অবস্থায় বিদ্যালয়ের চাকরি করা বা অবস্থান করা আমার জন্য অপমানজনক। বিদ্যালয়ের কাজের সুষ্ঠু পরিবেশ, সরকারি অর্থের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে এবং আমার যে অপমানজনক কথাবার্তা গালাগালি করা হয়েছে এর সুষ্ঠু তদন্ত ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আরিফা আক্তরের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে অনিত অভিযোগ মিথ্যা। এরপর তিনি ফোন কেটে দেন।
নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক কয়েক জন ৪র্থ ও ৫ম শ্রেনীর ছাত্র/ছাত্রী জানায়, হেড ম্যাডামের আচারন খুবই খারাপ, ম্যাডাম অন্য স্যারদের সাথে স্কুলে ঝগড়া করে, পড়াশুনার কোন পরিবেশ নাই। আমরা এর সমাধান চাই।
এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাকি ছালাম বলেন, সহকারি শিক্ষা অফিসার নাসির উদ্দিনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য আগামি ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত সময় দিয়েছি। তদন্তের পর ব্যবস্থা নিবো।
ম্যানেজিং কমিটির সহ-সভাপতি মাসুদ রহমান বলেন, এ বিষয়ে আমি শুনেছি, টিও ম্যাডাম ব্যবস্থা নিবে। তিনি আরো জানান, ২৬ মার্চের জন্য হেড ম্যাডাম মিটিং ডাকলো বেলা ২টার দিকে সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করার জন্য।কিন্তু তিনি সব সহকারি শিক্ষকদের ছুটি দিয়েছিলেন। আমি প্রশ্ন করায় ম্যাডাম বললো- আমরা ঠিক করে নিবো।
এব্যাপারে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বক্তব্য নেয়ার জন্য তাকে ফোন দিলে তিনি ধরেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট