1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৭:০৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
তিন দিনব্যাপী নজরুল জয়ন্তী সমাপ্ত আগামী বছর ত্রিশালে জাতীয় পর্যায়ে নজরুল জন্মজয়ন্তী উদযাপিত হবে–সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী ভুমিহীন উচ্ছেদে সময় বাড়ানোসহ পুর্নবাসনে মানববন্ধন। নড়াইলে বিপুল পরিমাণ গাঁজা ও ইয়াবা সহ আটক ২ হরিনাকুণ্ডুতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক্টর খাদে, চাপা পড়ে চালক নিহত হজে যাওয়ার ব্যয় জনপ্রতি আরও বাড়ল ৫৯ হাজার টাকা: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী উলিপুরে ব্রহ্মপুত্র নদীর ভাঙন ভয়াবহ রূপ কাঁদছে নদীর পাড়ের মানুষ কুমিল্লা জেলায় আদর্শ সদর উপজেলা আনসার ভিডিপি ২০২২ সমাবেশ অনুষ্ঠিত। টেক্সাসে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বন্দুকবাজের গুলি, ১৯ শিশুসহ নিহত ২১।  কালিয়ায় অজ্ঞাত যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার।

সাড়ে ৯ বছর পর প্রমাণিত হলো মামলাটি মিথ্যা, বাদিকে গ্রেফতারের নির্দেশ!

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৫২ বার পড়া হয়েছে

সাড়ে ৯ বছর পর প্রমাণিত হলো মামলাটি মিথ্যা, বাদিকে গ্রেফতারের নির্দেশ!

রায়হান হোসাইন, বিভাগীয় প্রধান, চট্টগ্রামঃ-

চট্টগ্রামে নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে মিথ্যা মামলা সাজিয়ে হয়রানির পরিপ্রেক্ষিতে ওই মামলার বাদিকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ ১৬ জানুয়ারি, রবিবার দুপুরে চট্টগ্রামের নারি ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৪ এর বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মো. জামিউল হায়দার এ আদেশ দেন। এর আগে গত বছরের ৩১ অক্টোবর হয়রানি মামলার বাদি বিলকিছ বেগমের বিরুদ্ধে নারি ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১৭ ধারার ফৌজদারি অভিযোগে নগরের বায়েজিদ থানা আরেফন নগরের বাসিন্দা নুরুল হক মান্না নামের এক ভুক্তভোগীর পক্ষে মামলাটি দায়ের করেন সিনিয়র আইনজীবী মুজিবুল হক।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন আইনজীবী আয়েশা আক্তার।

এদিকে বিলকিছের সাজানো দায়ের করা মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০০৯ সালের ২০ অক্টোবর মিথ্যা তথ্য দিয়ে নারি ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(৪)(খ) ধারায় তিনজনকে আসামি করে নারি ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা করেন বায়েজিদ থানার আরেফিন নগর এলাকার আবু বক্কর ছিদ্দিক প্রকাশ বাম্পারের মেয়ে বিলকিছ বেগম(৩৫)। মামলায় আসামি ছিলেন নুরুল হক মান্না, একই এলাকার আবদুল ওহাবের ছেলে কাজী নজরুল ইসলাম(৭২) এবং আলী জহিরের ছেলে ওসমান গনি পুতু। মান্না উচ্চ আদালত থেকে জামিন নেন, বাকী দুইজন বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করেন।

আইনজীবী আয়েশা আক্তার বলেন, আসামি বিলকিছ বেগম নারি ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(৪)(খ) এর মত স্পর্শকাতর ধারায় মামলা করে বাদীসহ আরো দুই ব্যক্তিকে হয়রানি করেছেন। তারা দীর্ঘ সাড়ে ৯ বছর ওই মামলার ঘানি টেনেছেন। পরে তিনজনই নির্দোষ প্রমাণে খালাস পেয়েছেন। আমরা আদালতে বিষয়টি উপস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছি। পরে এই আইনের ১৭ ধারায় আনিত ভুক্তভোগীর অভিযোগ আদালত আমলে নিয়ে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট