1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৩২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
বিএসএনপিএস কমিটি গঠন:সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক সাধারণ সম্পাদক শামছুল আলম রামগড়ে বিজিবির ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে উন্নয়ন মাইলফলক। এফবিজেও’র বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ৪ঠা ডিসেম্বরের মহাসমাবেশ সফল করতে নগরীর চান্দগাঁও কাপ্তাই রাস্তার মাথায় প্রচারণা ও লিফলেট বিতরণ। নওগাঁ জেলায় প্রথম স্থানীয় প্রবীণ এবং উদীয়মান শিল্পীগন দের টেলিফিল্ম। চট্টগ্রাম চান্দগাঁও থানাধীন শুকতারা পত্রিকার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি উদযাপন। কক্সবাজার রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির দায়িত্বে চেয়ারম্যান মার্শাল ও এড. অপু স্মরনকালের সেরা জনসমুদ্রে রুপ নিবে চট্টগ্রামের মহাসমাবেশ- হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর। ফখরুজ্জামান চট্টগ্রামের নতুন জেলা প্রশাসক

পদ্মা পারের রাখাল রাজা, আমিনুল ইসলাম রতন।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: সোমবার, ২৮ মার্চ, ২০২২
  • ১৩৬ বার পড়া হয়েছে

পদ্মা পারের রাখাল রাজা,
আমিনুল ইসলাম রতন।

সানজিদ মাহমুদ সুজন,শরীয়তপুর প্রতিনিধি।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী, জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপোষহীন যোগ্য- দক্ষ হাজারো নেতা রয়েছেন বাংলাদেশে।
যারা দলের চরম দুঃসময়ে ছাত্রলীগের রাজনিতিটা মাঠে থেকে করেছেন ।

১৯৯০–১৯৯৯ পর্যন্ত যারা রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন তারা
ছাত্রলীগ সভাপতি বর্তমান পানিসম্পদ উপমন্ত্রি এনামুল হক শামিম।বর্তমান শরীয়তপুর ১আসনের এম,পি ইকবাল হোসেন অপু।ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বাহাদুর বেপারি, সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা আমিনুল ইসলাম রতন,তমিজুদ্দিন তমি, বঙ্গবন্ধু হলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাফরুল বাবু, কামরুজ্জামান হোসেন, ঢাকা কলেজের সাবেক নেতা জসীমউদ্দীন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান ভুলু, জাকির হোসেন মারুফ, মোস্তফা হুমায়ুন হিমু, শহীদুল্লাহ হলের সাবেক সভাপতি ইকবাল হোসেন। দেব দুলাল, এ্যাডভোকেট মাহবুব সরোজ।বাবুল তালুকদার,তপন মোল্লা, ছোট শামিম,ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহি সদস্য পার্থ প্রতিম আচার্য।

যাদের মধ্যে অনেকেই ঐ সময়ে ছাত্রদলের নির্যাতনে মারা গেছে।আবার কেউ ব্যাবসা বানিজ্য করে বিদেশে পারি জমিয়েছেন।

তবে ঐ সময় প্রতিদিনের আলোচনা,বি,এন,পি ও ছাত্রদলের চরম নির্যাতিত এবং একাধিকবার কারাবরন কারি নেতা,যাকে ছারাতে ছাত্রলিগ কর্মিরা পুলিশের থেকেও কেড়ে নিতো এমন একজনি নেতা ছিলো।যে ২০০৭ সালে ১-১১ এর সময়ে নেতৃর মুক্তির সংগ্রাম যাতে না হয় সেজন্য লিস্টেট কর্মিদের মধ্যে তালিকা করে,যাদের গুম খুন করা হয় তাদের মধ্যে বেচে থাকা নেতা।
যে মাসের পর মাস নির্যাতনের ভয়ে পালিয়ে বেরায়ে ছিলো,যাকে না পেয়ে তার পরিবারের ভাই,ভাতিজা,ভাগ্নেদের গ্রেপ্তার করে অমানুষিক নির্যাতন চলেছিলো,এমনি এক নেতা যাকে আজ সবাই ভুলে যেতে বসেছে, শরীয়তপুরের আমিনুল ইসলাম রতন।
যেনে নিবো তার সম্পর্কেই কিছু জানা-অজানা তথ্য
রাজনৈতিক__বৃত্তান্তঃ
যুগ্ম_আহ্বায়ক: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, জাজিরা উপজেলা শাখা, ১৯৮৮ইং

সভাপতি: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, জাজিরা ডিগ্রি কলেজ শাখা, ১৯৮৯ইং
যুগ্ম_সাধারন_সম্পাদক: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ,শরীয়তপুর জেলা শাখা, ১৯৯১ইং
জাতীয়_পরিষদ_সদস্য: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ(ম-ই) ১৯৯৪ইং
সদস্য: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ জাতীয় কার্যকরী সংসদ(শামীম-পান্না) ১৯৯৫ইং
তথ্য_গবেষনা_সম্পাদক: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ জাতীয় কার্যকরী সংসদ(বাহাদুর-অজয়) ১৯৯৮ইং
সহ_সম্পাদক: বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটি ২০১৩ইং।
সাংগঠনিক_সম্পাদক: বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, শরীয়তপুর জেলা শাখা(২০১৭-২০২১)
এমন প্রদীপ্ত সূর্যের মতো জ্বল-জ্বলে রাজনৈতিক ইতিহাস/ঐতিহ্য যার,সেই রাজপথের সাহসী সৈনিক জননেতা জনাব “এস এম আমিনুল ইসলাম রতন”।

শরীয়তপুরের জাজিরার রাজনিতিতে তার পরিবারের ভুমিকা ব্যাপক।তার পিতা মরহুম চেরাগ আলি সরদার দুবারের চেয়ারম্যান ছিলেন,তার বড়ো ভাই সিরাজুল ইসলাম সরদার দির্ঘ ২৭ বছর চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
যে যাই বলুক এলাকার রাজনিতিতে তার ভুমিকা ব্যাপক,জনপ্রিয়তার শির্ষে থাকা এ নেতা আজ কালের বিবর্তনে, রাজনৈতিক রেসানলে পরে,কিছুটা শান্ত।
এলাকার প্রবিন নেতারা মনে করেন, তার আরো আগেই দলিয় বড়োপদ বা এম,পি হওয়ার কথা ছিলো,তার ভাগ্যের কারনেই তিনি আজো কিছু হতে পারেন নি।
প্রবল একরোখা ও ব্যাক্তিত্য সম্পন্ন একজন ছেলে রতন।আমরা চাই আগামিতে সে আমাদের জিবদ্দশায় বড়ো কিছু হোক।
আশা করি মাননিয় প্রধানমন্ত্রি,জননেত্রী তার কর্মিদের নিরাশ করেন না।কারন মা তার সন্তানদের প্রতি যথেস্ট মানবীয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট