1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:২৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালিত l বিভাগীয় প্রশাসন ও দুর্নীতি দমন কমিশন চট্টগ্রাম ১০ ই ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে শফিকুল ইসলাম পেলেন এফবিজেও এর সম্মাননা স্মারক গাজাসহ ২কারবারী আটক-র‌্যাব-৭,ফেনী ক্যাম্প। রামগড়ে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অশ্রসহ আটক ৪-সদরঘাট থানা নওগাঁর মান্দায় সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ফাইনাল পরিক্ষার ৩য়দিনে অপহরণ জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ আবৃত্তি প্রতিযোগীতায় প্রথম স্থান লাভ করেন জান্নাতুল মাওয়া। নওগাঁর মান্দায় ফকিন্নী নদী পুনঃখনন কাজের উদ্বোধন বগুড়া শান্তাহারে মানবিক সাহায্য সংস্থা নামের এনজিও কিস্তি না পেয়ে,মাথা ফাটিয়ে ক্যাসবক্স থেকে টাকা ছিনতাই

নওগাঁর মান্দায় কশব উচ্চবিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক অবরুদ্ধ, উদ্ধার করতে গিয়ে প্রধান শিক্ষক ও দফাদার লাঞ্চিত সভাপতিকে হুমকি

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২২
  • ৪৯ বার পড়া হয়েছে

নওগাঁর মান্দায় কশব উচ্চবিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক অবরুদ্ধ, উদ্ধার করতে গিয়ে প্রধান শিক্ষক ও দফাদার লাঞ্চিত সভাপতিকে হুমকি

এ.বি.এম.হাবিব স্টাফ রিপোর্টার
নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার ১৩ নং কশব ইউনিয়নে মধ্য পাড়া কশব উচ্চবিদ্যালয় নিয়োগকে কেন্দ্র করে প্রধান শিক্ষক মোঃ মোবারক আলী সরদারকে স্থানীয় কিছু হাইব্রিড নেতারা মারপিট করে অবরুদ্ধ করে রাখে। বিষয়টি মান্দা থানায় খবর পেয়ে ওসি, ড্রাইভার ও স্থানীয় দফাদার সেখানে উদ্ধার করতে গেলে লাঞ্চিতর শিকার হন।

(২অক্টোবর) রবিবার উপজেলার কশব উচ্চবিদ্যালয়ে ৫জনের নিয়োগের ঘটনায় স্থানীয় কিছু হাইব্রিড নেতারা উসকানি দিয়ে প্রায় ৪০/৫০জন লোক নিয়ে প্রধান শিক্ষক মোঃ মোবারক আলী সরদারকে তার নিজ অফিস কক্ষে মারপিট করে অবরুদ্ধ করে রাখে। দুর্গাপূজা মন্ডব পরিদর্শনের সময় এমন খবর পেয়ে মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহিনুর রহমান ড্রাইভারকে সাথে নিয়ে স্থানীয় দফাদার মোঃ খায়রুল ইসলাম খয়েরকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে সেখানে উদ্ধার করতে যান। প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার করে বের হতে লাগলে স্থানীয় কিছু আওয়ামীলীগের হাইব্রিড নেতারা আক্রমণ করে মারপিট ও লাঞ্চিত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

 

স্থানীয়রা ও ভুক্তভুগি খয়ের দফাদার জানায়, প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার করে বের হতে লাগলে সেখানে পার্বপরিকল্পিত ভাবে আতাবর,জাহাঙ্গীর,সালাম,আফছার,মোয়াজ্জেম, মোহন,আমিনুলসহ অনেকে উসকানি দিয়ে বলে,এই দফাদার কিছু হলেই পুলিশ ডেকে নিয়ে আসে, দফাদারকে ধরো বলেই জাহাঙ্গীর দফাদারের সরকারী পোষাক পিছন দিক থেকে টান দিয়ে ধরে, মোয়াজ্জেম হোসেন টিপু ও ছালাম দু,দিক থেকে কলার ধরে টানা হেজড়া করে ছিড়ে ফেলে দেয়। এমতাবস্থায় আতাবর সরকার তার গলা চেপে ধরে বাঁকীরা চতুরদিক থেকে এলো পাতারী ভাবে কিল-ঘুষি মারতে থাকে। সে চিৎকার করে ওসি সারের সাহায্য চাইতে দেখতে পায়, সারকেও ধাক্কাধাক্কি করছে,অন্যদিকে প্রধান শিক্ষককেও ধাক্কাধাক্কি,এলোপাতারী ভাবে মারপিট করছে। এমন পরিস্থিতিতে স্থানীয়রা এসে তাদেরকে উদ্ধার করে মান্দা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরবর্তীতে প্রধান শিক্ষক মোঃ মোবারক আলী সরদার বাদী হয়ে ২৪ জন নামীয় ও অজ্ঞাত ২০/২৫জনকে আসামী করে মান্দা থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন।

স্থানীয়রা জানায়,স্থানীয় কিছু হাইব্রিড নেতা ও বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি সালাম সরকার দায়িত্বে থাকাকালীন সময়ে বিভিন্ন ছেলেদের বিদ্যালয়ে চাকরী দেওয়ার নাম করে বহু টাকা নিয়েছে কিন্তু তাদের চাকরী হয় নাই। তাই তারা সেই নেতাদের বা সালামের কাছ থেকে টাকা ফেরত চাইলে, সাবেক সভাপতি সালাম ও নেতারা এসে এমন গোন্ডগোল ও লাঞ্চিতর ঘটনা ঘটায়।

প্রধান শিক্ষক ও বিদ্যালয়ের সভাপতি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ফজলুর রহমানের সাথে মোবাইলে কথা হলে তারা জানান, যারা চাকরী পেয়েছে,তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী পেয়েছে। এবং নিয়মমত পরিক্ষা, ভায়বা দিয়ে পেয়েছে। কিন্ত এই পরিক্ষা,ভায়বাতে সাবেক সভাপতি সালামের ছেলেরা টিকে নাই বা সে যাদের কাছ থেকে আগেই টাকা নিয়েছে তাদের চাকরী হয় নাই। তাই তারা পরিকল্পনা করে এমন আক্রমণ, নির্যাতন ও লাঞ্চিত করেছে। বর্তমানেও তারা খুন-জখমে হুমকি অব্যহত রেখেছে। তিনি বলেন, তিনি বর্তমান জনগনের ভোটে নির্বাচিত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান,ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এবং সেই কশব উচ্চবিদ্যালয়ের সভাপতি কিন্তু সালাম আওয়ামীলীগ থেকে একজন বহিস্কৃত লোক হয়েও, আমাকে এখনো খুনের হুমকি দিয়ে আসছে। প্রশাসনের কাছে তিনি এই হুমকি দাতাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা চান।

অন্যদিকে দফাদার খায়রুল ইসলাম খয়ের জানান, প্রধান শিক্ষককের মামলা করার পর আসামীরা জামিন পেয়ে আরো উশৃংখল ও হুমকার দিয়ে বলছে, যেকোন সময় প্রধান শিক্ষক মোবারক আলী, সভাপতি ফজলুর রহমান ও তাকেও একা পেলে খুন করে ফেলবে। দফাদার খয়ের আরো জানান, তাদেরকে হয়রানি-পেরেশানী করার জন্য আসামী সালাম সরকার অলরেডি তাদের বিরুদ্ধে একটি আড়াই লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের নাটক সাজিয়ে কোর্টে মিথ্যা মামলা করেছে। এবং বিভিন্ন জনের কাছে দাপিয়ে বলে বেড়াচ্ছে দুনিয়া থেকে তাদেরকে একবারে তুলে দেবে। তারা এলাকায় আইনশৃঙ্খলার অবনতি বা কোন প্রকার তাদের অপুরোনীয় ক্ষতি যেন না হয় তাই তারা প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে সালামকে একাধিক বার মোবাইল ফোন করলেও রিসিভ করেন নাই।

এ বিষয়ে মান্দা থানার বর্তমান অফিসার ইনচার্জ জানান,গতকাল তিনি এই থানায় জয়েন্ট করেছেন তাই এ বিষয়ে বর্তমানে তেমন কিছু বলতে পারবেন না বা জানা নেই বলে জানান।

স্থানীয় ভাবে একাধিক ব্যাক্তি জানান,বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি সালাম সরকার তার সভাপতি থাকাকালীন সময়ে একাধিক ছেলের কাছ থেকে চাকরী দেওয়ার কথা বলে টাকা নিয়েছে। তার সভাপতির মেয়াদ শেষ হয়ে যায় কিন্তু কাহকেই চাকরী দিতে পারে নাই। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবেও সে নির্বাচন করে। সেখানেও আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মোঃ ফজলুর রহমানের কাছে বিপুল ভোটে হেরে যান। এ গুলো বিষয় নিয়ে সালামের মধ্যে একটি ক্ষোভের কাজ করছে। অন্যদিকে গোপনে কিছু বড় নেতারাও তাকে শেল্টার দিচ্ছে বিধায় সে বহিস্কৃত হয়েও এমন গর্জন দিয়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। বর্তমানে ইউনিয়নে বেশ থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে,যেকোন সময় বড় ধরনের আইনশৃংখলার অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে সচেতন মহল মনে করছেন। তাই বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার আগেই আইনশৃঙ্খলা ও প্রশাসনের কশব ইউনিয়নে হস্তক্ষেপ কামনা করছেন স্থানীয়রা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট