1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালিত l বিভাগীয় প্রশাসন ও দুর্নীতি দমন কমিশন চট্টগ্রাম ১০ ই ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে শফিকুল ইসলাম পেলেন এফবিজেও এর সম্মাননা স্মারক গাজাসহ ২কারবারী আটক-র‌্যাব-৭,ফেনী ক্যাম্প। রামগড়ে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অশ্রসহ আটক ৪-সদরঘাট থানা নওগাঁর মান্দায় সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ফাইনাল পরিক্ষার ৩য়দিনে অপহরণ জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ আবৃত্তি প্রতিযোগীতায় প্রথম স্থান লাভ করেন জান্নাতুল মাওয়া। নওগাঁর মান্দায় ফকিন্নী নদী পুনঃখনন কাজের উদ্বোধন বগুড়া শান্তাহারে মানবিক সাহায্য সংস্থা নামের এনজিও কিস্তি না পেয়ে,মাথা ফাটিয়ে ক্যাসবক্স থেকে টাকা ছিনতাই

কুড়িগ্রামে ঠান্ডায় বাড়ছে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ১১৮ বার পড়া হয়েছে

কুড়িগ্রামে ঠান্ডায় বাড়ছে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা
রুহুল আমিন রুকু, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামে কনকনে শীত আর উত্তরীয় ঠান্ডা বাতাসে কাহিল হয়ে পরেছে শ্রমজীবী মানুষ। দিনে সূর্যের আলো দেখা গেলেও বিকেল থেকে সকাল পর্যন্ত ঘন কুয়াশা আর ঠান্ডা হাওয়ার কারণে বিপর্যস্ত হয়ে পরেছে জনজীবন। বৃহস্পতিবার জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১১ দশমিক ২ডিগ্রি সেলসিয়াসে।
এদিকে প্রচন্ড ঠান্ডার ফলে আগুন জ¦ালিয়ে ঠান্ডা নিবারণের চেষ্টা করছে শীতার্ত মানুষ। সকালে হেডলাইট জ¦ালিয়ে গাড়ি চলাচল করছে। সন্ধ্যার পর ফাঁকা হয়ে যায় গোটা এলাকা। প্রতিদিন হাসপাতালে বাড়ছে নতুন নতুন রোগীর সংখ্যা। এদের মধ্যে শিশু এবং বৃদ্ধ রোগির সংখ্যা বেশি।
জেলার উলিপুর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের গোড়াই রঘুরায় গ্রামের কৃষক মোস্তাফিজার রহমান, জমসেদ আলী ও বাচ্চু মিয়া জানান, ঠান্ডার ফলে কামলা পাওয়া যাচ্ছে না। পেলেও পুরোদিনের কাজ করা সম্ভব হয় না। কিছুক্ষণ পর পর তাদেরকে বিশ্রাম নিতে হয়। ফলে কাজ এগোয় না।
কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের খলিলগঞ্জ বাজারের ফার্মেসি ব্যবসায়ী প্রিন্স ও রোকন জানান, এই এলাকায় ঘরে ঘরে শিশুদের সর্দি-কাশি ও ডায়রিয়া দেখা দিয়েছে। প্রতিদিন রোগীর চাপে হিমসিম খাচ্ছে শিশুরোগ বিশেষজ্ঞরা। দিনে গড়ে প্রায় ৪০ থেকে ৫০টি শীতজনিত রোগীর প্রেসকিপশন পাচ্ছি আমরা।
খলিলগঞ্জ কাশিয়াবাড়ী এলাকার গৃহিনী আলতাফুননেছা জানান, ঠান্ডাতে শিশুর পাতলা পায়খানা হয়েছে। এই পাড়ায় শিশুদের জ¦র, সর্দি, কাঁশির প্রকোপ বেড়েছে। এছাড়াও ঠান্ডা পানি ব্যবহার করায় মহিলাদের হাত-পায়ে ঘা হচ্ছে।
কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. পুলক কুমার সরকার জানান, হাসপাতালে ও আউটডোরে প্রতিদিন শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। শিশু ও ডায়রিয়া আইসোলেশন ওয়ার্ডে প্রতিদিন গড়ে ৩৫ থেকে ৪০জন চিকিৎসা নিচ্ছে।
জেলার রাজারহাট আবহাওয়া অফিসের ইনচার্জ আনিছুর রহমান জানান, ধীরে ধীরে শীতের প্রকোপ কমছে। আগামি সপ্তাহের মধ্যে তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে চলে আসতে পারে। বৃহস্পতিবার জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১১দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট